মোবাইল বা সেলুলার ফোন কি? মোবাইল ফোন কত প্রকার ও কী কী?

সেলুলার ফোন কাকে বলে? কত প্রকার ও কী কী?

সেলুলার টেলিফোন (Cellular Telephone)

সেলুলার ফোন বা মোবাইল ফোন কাকে বলে? (What is Cellular Telephone or Mobile Phone?)

সেলুলার ফোন বা মোবাইল ফোন হলো এক বিশেষ ধরনের ফোন যা সেলের আওতায় স্থাপিত ট্রান্সমিটার এর সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করে কাজ করে। ট্রান্সমিটারের কভারেজের স্প্যানকে সেল (cell) বলা হয়। যেহেতু সেলুলার টেলিফোন ব্যবহারকারী এক সেল বা কভারেজ এরিয়া হতে অন্যান্য সেল বা কভারেজ এরিয়াতে চলাচল করে তাই টেলিফোনটি কার্যকরভাবে স্থানীয় সে ট্রান্সমিটারের মধ্য দিয়ে যায়।

মোবাইল ফোন হলো একটি ইলেকট্রনিক ডিভাইস (electronic device) যা বেস স্টেশনের একটি সেলুলার নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ফুল ডুপের দ্বিমুখী রেডিও টেলিকমিউনিকেশন্সকে ব্যবহার করে থাকে। এর মাধ্যমে যে কোন ভৌগলিক অবস্থানে থাকা দুই ব্যক্তি একে অপরের সাথে টেলিকমিউনিকেশন ডিভাইসের মাধ্যমে ভয়েস এবং টেক্সট মেসেজ আদান-প্রদান করতে পারে।

মোবাইল ফোন হাতের মধ্যে বা সহজে বহন করা যায়। তাই মোবাইল ফোনকে সেল ফোন, সেলুলার ফোন, হ্যান্ডফোন, মুঠোফোন নামেও ডাকা হয়। মোবাইল শব্দের অর্থ হলো ভ্রাম্যমান বা স্থানান্তরযোগ্য। মোবাইল ফোন ওজনে হালকা হওয়ায় সহজে যেকোন স্থানে নিয়ে ব্যবহার করা যায়। যার ফলে একে মোবাইল ফোন বলা হয়। বর্তমানে স্মার্ট মোবাইল ফোনে উন্নত কম্পিউটিং সুবিধা পাওয়া যায়।

আরও পড়ুন:

মোবাইল ফোন কি? মোবাইল ফোনের জনক, বৈশিষ্ট্য, সুবিধা ও অসুবিধা

ইন্টারনেট কাকে বলে? ইন্টারনেট কত প্রকার? সুবিধা ও অসুবিধা

ভার্চুয়াল রিয়েলিটি কি? কীভাবে কাজ করে, প্রাত্যহিক জীবনে এর ব্যবহার

সেলুলার ফোনের প্রকারভেদ
সেলুলার ফোনের প্রকারভেদ

সেলুলার ফোনের প্রকারভেদ (Classification of Cellular Phone)

মোবাইল ফোন কত প্রকার ও কী কী? (How many types of mobile phones?)

গঠনগত দিক থেকে সেলফোন বা মোবাইল ফোনকে সাধারণত নিম্নোক্ত ভাগে ভাগ করা যায়। যথা-

  • বেসিক ফোন (Basic Phone).
  • ক্যামেরা ফোন (Camera Phone) .
  • মিউজিক/এমপিথ্রি ফোন ( Music / MP3 Phone).
  •  ভিডিও ফোন (Video Phone).
  • স্মার্টফোন (Smart Phone).
  • পিডিএ ফোন (PDA Phone).

 

বেসিক ফোন (Basic Phone)

বেসিক ফোন কাকে বলে? (What is Basic Phone?)

সাধারণত স্বল্প বাজেটের ফোনগুলোকে বেসিক ফোন বলে। মোবাইল ফোনের বেসিক ফাংশনগুলো ছাড়া এসব ফোনে তেমন কিছু পাওয়া যায়না। সাধারণত কথা বলা, মেসেজে তথ্য আদান-প্রদান করা, এফএম রেডিও শোনা ইত্যাদি কাজে এসব ফোন ব্যবহৃত হয়।

ক্যামেরা ফোন (Camera Phone)

ক্যামেরা ফোন কাকে বলে? (What is Camera Phone?)

বেসিক ফোনের চেয়ে বেশি মূল্যের মোবাইল ফোনগুলোকে ক্যামেরা ফোন বলে। বিভিন্ন ধরনের ক্যামেরা ফোন বাজারে পাওয়া যায়। যে ফোনের ক্যামেরার মেগাপিক্সেল যত বেশি সে ফোনের দাম তত বেশি। অধিক মেগাপিক্সেল সম্পন্ন ক্যামরা দিয়ে ভালো মানের ছবি তুলা যায়। বর্তমানে বেসিক ফোন ছাড়া অন্য প্রায় সকল মোবাইল ফোনেই বিভিন্ন মানের ক্যামেরা যুক্ত থাকে।

মিউজিক/এমপিথ্রি ফোন (Music / MP3 Phone)

মিউজিক/এমপিথ্রি ফোন কাকে বলে? (What is Music / MP3 Phone?)

যেসব ফোনে সেলুলার ফোনের অন্যান্য সুবিধার পাশাপাশি গান শোনার ব্যবস্থা থাকে তাকে মিউজিক/এমপিথ্রি ফোন বলে। মূলত সঙ্গীত পিপাসুদের উদ্দেশ্য করে এসব ফোন তৈরি করা হয়েছে। এসব ফোনে গান শোনা ছাড়াও এফএম রেডিও, ক্যামেরা ইত্যাদি আরও অনেক উন্নত সুবিধা পাওয়া যায়। সাধারণত বেসিক ও ক্যামেরা ফোনের চেয়ে এসব ফোনের অভ্যন্তরীণ মেমোরির ধারণ ক্ষমতা অনেক বেশি হয়ে থাকে। এছাড়া মাইক্রো এসডি কার্ড সংযুক্ত করেও ফোনের মেমোরি বাড়ানো যায়।

আরও পড়ুন:

কম্পিউটার কাকে বলে? কম্পিউটারের বৈশিষ্ট্য, প্রকারভেদ ও ব্যবহার

কৃত্রিম উপগ্রহ কি বা কাকে বলে? কৃত্রিম উপগ্রহের প্রকারভেদ ও ব্যবহার

প্লেজারিজম কি বা কাকে বলে? প্লেজারিজমের প্রকারভেদ ও ধরার কৌশল

ভিডিও ফোন (Video Phone)

ভিডিও ফোন কাকে বলে? (What is Video Phone?)

যেসব ফোনে ক্যামেরা দিয়ে স্থির ছবি তোলার পাশাপাশি ভিডিও ধারণ করা যায় সেগুলোকে ভিডিও ফোন বলে। এছাড়া, এসব ফোনে সাধারণত থ্রিজি নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ভিডিও কল করা যায়্। বর্তমানে বাজারে বিভিন্ন ধরনের ভিডিও ফোন পাওয়া যায়।

স্মার্ট ফোন (Smart Phone)

স্মার্ট ফোন কাকে বলে? (What is Smart Phone?)

অনেক উন্নত কম্পিউটিং ও কানেকটিভিটির সুবিধাসম্পন্ন মোবাইলকে স্মার্ট ফোন বলে। এসব ফোনে উন্নত নানা অ্যাপ্লিকেশন ইন্সটল করা যায়। এজন্য স্মার্ট ফোনগুলোতে মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম থাকে যা প্লাটফর্ম নামে পরিচিত।
স্মার্ট ফোন উন্নত মানের প্রসেসর ও মেমোরি দিয়ে তৈরি। এসব ফোন সবদিক থেকে বেশ শক্তিশালী হয়ে থাকে। এসব ফোনে উন্নত সকল সুবিধার পাশাপাশি উন্নত ক্যামেরা, ডিসপ্লে, এসএমএস, এমএমএস, ইমেইল, পুশ ইমেইল, ব্রাউজার ইত্যাদিসহ নানা ফিচার থাকে।

পিডিএ ফোন (PDA Phone)

পিডিএ ফোন কাকে বলে? (What is PDA Phone?)

পার্সোনাল ডিজিটাল অ্যাসিস্টেন্ট এর সুবিধাসম্পন্ন ফোনগুলোকে পিডিএ ফোন বলে। র্বতমানে প্রযুক্তির দিকে থেকে এটি সবচেয়ে সেরা ফোন। এসব ফোন ক্ষুদ্রাকৃতির কম্পিউটারও বটে। আজকাল এসব ফোনে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন সুবিধা যুক্ত হচ্ছে।

পিডিএ ফোন গুলোতে যেসব সুবিধা পাওয়া যায়। তা হলো-

  • সেলফোন সার্ভিস (Cellphone service) .
  •  ইন্টারনেট কানেকটিভিটি (Internet connectivity) .
  • ই-মেইল (e-mail).
  • টেক্সট মেসেজিং (Text messaging).
  • ফটো স্টোরেজ ও ট্রান্সমিশন (Photo storage and transmission).
  • ডিজিটাল ক্যালেন্ডার (Digital calendar).
  • ডিজিটাল ও ইলেকট্রনিক ফাইল স্টোরেজ (Digital and electronic file storage).
  •  ভিডিও কনফারেন্সিং (Video conferencing).
  • ভিডিও ট্রান্সমিশন (Video transmission).
  •  ভিডিও ভিউয়িং প্রভৃতি (Video viewing etc).

আরও পড়ুন:

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি কাকে বলে? তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির সুফল ও কুফল  

ভিডিও কনফারেন্সিং কি? ভিডিও কনফারেন্সিং এর সুবিধা

মোবাইল ফোনের বৈশিষ্ট্য (Characteristics of Mobile Phone)

  • সকল মোবাইল ফোনের একটি সিম থাকে। ব্যবহারকারী নিজের ইচ্ছে মতো যে কোন কম্পানির সিম ব্যবহার করতে পারে।
  • সকল মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীকে কথা বলা ও তথ্য আদান-প্রদানের সুবিধা প্রদান করে।
  • সব মোবাইল ফোনে একটি রিচার্জঅ্যাবেল ব্যাটারি থাকে। ফোনের ব্যাটারির চার্জ শেষ হয়ে গেলে আবার চার্জ করা যায়।
  • মোবাইল ফোনের কী প্যাড ব্যবহার করে ইনপুটের কাজ করা হয়। তবে, আধুনিক অনেক মোবাইল ফোনে টাচ স্ক্রিনের মাধ্যমে ইনপুটের কাজ করা হয়।
  • সকল মোবাইল ফোনের একটি IMEI (International Mobile Equipment Identity) থাকে। যদি কোন কারণে মোবাইল হারিয়ে বা চুরি হয়ে যায় তাহলে এই নম্বরের মাধ্যমে ফোন পুনরুদ্ধার সম্ভব।

 

মোবাইল ফোনের সুবিধা (Advantages of Mobile Phone)

আধুনিক মোবাইলে যেসব সুবিধা পাওয়া যায় তা হলো-

  • আধুনিক মোবাইল ফোনের মাধ্যমে দেশ বা বিদেশের যেকোনো জায়গায় কথা বলা, মেসেজের মাধ্যমে তথ্য আদান প্রদান ইত্যাদি করা যায়।
  • দেশ বা বিদেশের যেকোনো জায়গায় মাল্টিমিডিয়া মেসেজ বা এমএমএস পাঠানো ও গ্রহন করা যায়।
  • মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ই-মেইল গ্রহণ ও প্রেরণ করা যায়।
  • ৪. ভিডিও কলে দেশ বিদেশে কথা করা যায়।
  • ৫. ভয়েস ও ভিডিও চ্যাটিং করা যায়।
  • ৬. ইচ্ছে মতো গান শোনা এবং ভিডিও দেখা যায়।
  • ৭. অডিও এবং ভিডিও রেকর্ড করা যায় এবং রের্কড করা অডিও এবং ভিডিও সংরক্ষণ করা যায়।
  • ৯. ইন্টারনেট ব্রাউজ করা যায়।

#####

শেষ কথা: আজকের এই পোস্ট থেকে আমরা মোবাইল বা সেলুলার ফোন কি? মোবাইল ফোন কত প্রকার ও কী কী? মোবাইল ফোনের বৈশিষ্ট্য এবং সুবিধা সম্পর্কে জানতে পারলাম।  পোস্টটি ভালো লাগলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button