সুন্নাত কি বা সুন্নাত কাকে বলে? সুন্নাত কত প্রকার ও কী কী?

সুন্নাতের প্রকারভেদ

সুন্নাত

সুন্নাত কী?

ইসলামী শরীয়তের প্রধান উৎস দুইটি। প্রথমটি হলো মহাগ্রন্থ আল-কুরআন আর অপরটি হলো নবী কারিম (স: ) এর সুন্নাত বা আল হাদিস।  সুন্নাত হচ্ছে মহাগ্রন্থ আল কুরআনের ব্যাখ্যা।  আজকের এই পোস্টে সুন্নাত কি বা কাকে বলে? সুন্নাত কত প্রকার ও কী কী? তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো ।

সুন্নাত কাকে বলে?

শরীয়তের পরিভাষায়, রাসুলুল্লাহ (সাঃ) এর দৈনন্দিন জীবনের প্রতিটি বাণী,কাজ, অনুমোদন ও মৌন সম্মতিকে সুন্নাত বলে।

‘সুন্নত’ শব্দের আভিধানিক অর্থ সুস্পষ্ট রীতি, নিয়ম, আদর্শ তরীকা ইত্যাদি।  প্রচলিত অর্থে রাসুল(সাঃ)-এর রীতিনীতিকে সুন্নত বুঝায়। ইসলামী পরিভাষায়, রাসুল (সাঃ)-এর দৈনন্দিন জীবনের প্রতিটি কাজ, বানী, পছন্দনীয় রীতিনীতি ও নির্দেশিত পথকে সুন্নত বলে।

আরও পড়ুন:

মুমিন কাকে বলে? তাদের বৈশিষ্ট্য? মুসলিম ও মুমিনের পার্থক্য

নিফাক শব্দের অর্থ কি? নিফাকের কুফল এবং প্রতিকারের উপায়

রাসুল (সাঃ) ছিলেন উম্মতে মোহাম্মদীর’র জন্য শিক্ষক সরূপ । একজন মুসলমানের আচার আচরণ, ইবাদাত, ব্যবহার কেমন হবে তা নিজের জীবনে বাস্তবে আমলের মাধ্যমে উম্মতের জন্য নিদর্শন রেখে গেছেন রাসুল (সাঃ)। রাসুল (সাঃ) েএর সারা জেীবনের কথা ও কাজের মাধ্যমে রেখে যাওয়া সবকিছুই উম্মতে মোহাম্মদীর জন্য সুন্নত।

সুন্নাতের প্রকারভেদ

 

সুন্নাত কত প্রকার ও কী কী?

সুন্নাত দুই প্রকার। যথা-

  • সুনাতে মুয়াক্কাদা। 
  • সুন্নাতে যায়েদা।

 

সুন্নাতে মুয়াক্কাদা কাকে বলে?

সুন্নাতে মুয়াক্কাদা এরূপ কাজকে বুঝায় যেসব কাজ রাসুল (সা:) নিজে করেছেন, কোন ধরণের ওজর ছাড়া কখনো বাদ দেননি এবং তাঁর উম্মতকে এসব করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন।

যেমন- ফজর সালাতের ফরজের আগে দুই রাকাত, জোহরের নামাজের ফরজ সালাতের পর দু রাকাত সুন্নাত ইত্যাদি।

বি.দ্র: ইচ্ছা করে সুন্নাতে মুয়াক্কাদা পরিত্যাগকারী অথবা পরিত্যাগে অভ্যস্ত ব্যক্তি ফাসিক ও গোনাহগার। 

আরও পড়ুন:

তাওহীদ কাকে বলে? তাওহীদ কয় প্রকার ও কি কি?

আসমানি কিতাব কাকে বলে? কয়টি ও কি কি?

হিজরত শব্দের অর্থ কি? হিজরত কাকে বলে?

সুন্নাতে যায়েদা কাকে বলে?

যেসব কাজ নবী কারিম (স:) কখনো করতেন, কখন কখনও আবার ছেড়ে দিতেন এবং সেসব কাজ করার জন্য নবী কারিম (স:) তার উম্মতকে কোনো নির্দেশও দেননি। সেসব কাজকে সুন্নাতে যায়েদা বলা হয়।

যেমন- এশা ফরজ সালাতের আগে চার রাকাত এবং আসরের ফরয সালাতের আগে চার রাকাত।

বি.দ্র: যে ব্যক্তি সুন্নাতে যায়েদা পালন করবে সে অনেক সওয়াব ও কল্যাণ পাবে।  তবে, তা পরিত্যাগ করলে কোন গুনাহ হবেনা।

 

#####

এই পোস্ট থেকে আমরা সুন্নাত কি বা সুন্নাত কাকে বলে? সুন্নাত কত প্রকার ও কী কী? সম্পর্কে জানতে পারলাম। পোস্টটি কেমন লাগলো আমাদের কমেন্ট করে জানান। ধন্যবাদ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button