ল্যাপটপের গতি বাড়ানোর উপায়

ল্যাপটপের গতি বাড়ানোর উপায়

দৈনন্দিন কাজের জন্য আমরা প্রায়ই কম্পিউটার ব্যবহার করে থাকি। সে কম্পিউটারটি হতে পারে ডেস্কটপ অথবা ল্যাপটপ।অফিসে ব্যবহারের জন্য সাধারনত ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহার করা হয়। কিন্তু বাসায় ব্যবহার, শিক্ষক- শিক্ষার্থীদের কাজ ও বিনোদনের জন্য ল্যাপটপই বেশি ব্যবহার হয়ে থাকে।

এছাড়া ব্যাটারি ব্যাকআপ, সহজে বহন সুবিধার জন্য ল্যাপটপের ব্যবহার দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। ল্যাপটপের ব্যবহার যেমন বৃদ্ধি পাচ্ছে তেমনি এর সাথে যোগ হচ্ছে নতুন নতুন সব সমস্যা।  এসব সমস্যার মধ্যে অন্যতম একটি সমস্যা হলো ল্যাপটপ ধীর হয়ে যাওয়া।

আরও পড়ুন:

স্মার্টফোন বারবার হ্যাং হলে যা করবেন

হেডফোন ও ইয়ারফোনের মধ্যে পার্থক্য

দীর্ঘদিন ব্যবহারের ফলে ল্যাপটপ অনেক সময় ধীর হয়ে যায়। এর কারন হতে পারে প্রচুর পরিমানে টেম্প ফাইল বৃদ্ধি, ধূলোবালি জমে যাওয়া, ভাইরাসের আক্রমন, যন্ত্রাংশ পুরাতন হয়ে যাওয়া এবং সফটওয়্যার আপডেট না থাকা। এছাড়াও আরো নানান কারনে আপনার ল্যাপটপটি স্লো হতে পারে। চলুন দেখে নেওয়া যাক ল্যাপটপের গতি বাড়ানোর কিছু উপায়।

ল্যাপটপের গতি বাড়াবেন যেভাবে

১) প্রথমেই আপনার ল্যাপটপের চারপাশে ধূলাবালি আছে কি না ভালো করে দেখে নিন, যদি ধূলাবালি থাকে তাহলে তা ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিন।

২) ল্যাপটপ ধীরগতি হওয়ার অন্যতম একটি কারন হলো কারন হলো ভাইরাস, যদি কোনভাবে আপনার ল্যাপটপটি ভাইরাস আক্রান্ত হয় তাহলে সেটি ধীরগতি হওয়া স্বাভাবিক। এজন্য আপনাকে ফাইল ডাউনলোডে সাবধান হতে হবে। আর যদি কোনো কারনে ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হয়ে যায় তাহলে এন্টিভাইরাস ব্যবহার করতে হবে।

আরও পড়ুন:

ওয়াইফাইয়ের স্পিড বাড়াবেন যেভাবে

ফেসবুক আইডি হ্যাক হলে উদ্ধার করবেন যেভাবে

৩) আপ্রোয়জনীয় ফাইল মুছে ফেলাই উত্তম এগুলো শুধু শুধু ল্যাপটপের উপর চাপ বাড়ায়। দীর্ঘদিন ধরে অব্যবহৃত ফাইল বা একেবারেই আপ্রোয়জনীয় ফাইল রিসাইকেল বিনে পাঠিয়ে দেওয়াই উত্তম।

৪)হার্ড ড্রাইভে জায়গা খালি রাখা খুবই জরুরি। হার্ড ড্রাইভে ৮৫% জায়গা পুরন হয়ে গেলে আপনার ল্যাপটপের গতি ৫০% পর্যন্ত কমে যেতে পারে। ডাউনলোড করা ছবি,ফাইল, গান, মুভি যতসম্ভব কম রাখার চেষ্টা করুন। এছাড়াও গতি বাড়ানোর জন্য আপনি SSD ব্যবহার করতে পারেন।

৫)ব্রাউজার পরিষ্কার রাখাও জরুরি। সারাদিন ইন্টারনেট ব্রাউজিং করলে দেখা যায় তার হিস্ট্রি আমরা না মুছেই রেখে দেই যা আমাদের ল্যাপটপকে ধীর করে দিতে পারে। এজন্য ব্রাউজিং হিস্ট্রি পরিষ্কার রাখতে হবে।

আরও পড়ুন:

মোবাইল অফিশিয়াল না আন অফিশিয়াল বুঝবেন যেভাবে

ই-সিম কী? ই-সিমের সুবিধা ও অসুবিধা এবং ব্যবহারের নিয়ম

######

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button