ভাববাচক বিশেষণ কাকে বলে? ভাববাচক বিশেষণ কত প্রকার ও কী কী?

ভাব বিশেষণ

ভাববাচক বিশেষণ

আজকের এই পোস্টের মাধ্যমে আমরা আলোচনা করবো ভাববাচক বিশেষণ কাকে বলে? ভাববাচক বিশেষণ কত প্রকার ও কী কী? তাহলে চলুন শুরু করা যাক..

ভাববাচক বিশেষণ কাকে বলে?

যে বিশেষণ বিশেষ্য ও সর্বনাম বাদে অন্য শব্দকে বিশেষিত করে তাকে ভাববাচক বিশেষণ বলে। যেমন- খুব, প্রান্ত, অভ্যন্ত, অতি, অনেক প্রভৃতি।

নিচে এগুলোর সংজ্ঞা ও উদাহরণ দেওয়া হল-

ভাববাচক বিশেষ্যণকে দুই ভাগে ভাগ করা যায়।

যথা- ক. বিশেষণের বিশেষণ
খ, ক্রিয়া বিশেষণের বিশেষণ।

 

আরও পড়ুন:

ব্যাকরণিক শব্দশ্রেণি কাকে বলে?

বর্ণ কি বা বর্ণ কাকে বলে? বর্ণ কত প্রকার ও কি কি?

বিশেষণের বিশেষণ- যে বিশেষণ কোন বিশেষণকে বিশেষিত করে তাকে বিশেষণের বিশেষণ বলে।

যেমন । সে খুব ভাল মানুষ। সে অত্যন্ত মেধাবী ছাত্রী।

ক্রিয়া বিশেষণের বিশেষণ- যে বিশেষণ কোন ক্রিয়া বিশেষণকে বিশেষিত করে তাকে ক্রিয়া বিশেষণের বিশেষণ বলে।

যেমন- ইন্টারনেট খুব দ্রুত কাজ করে। সে অতিরিক্ত দ্রুত কথা বলে।

 

আরও পড়ুন:

সমাস কাকে বলে? সমাস কত প্রকার?

বাক্য কাকে বলে? অর্থ অনুসারে বাক্য কয় প্রকার ও কী কী?

###

আজকের এই পোস্ট থেকে আমরা ভাববাচক বিশেষণ সম্পর্কে জানতে পারলাম। পোস্টটি কেমন লাগলো আমাদের কমেন্ট করে জানান। ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button