ফেসবুক লাইট কেন ব্যবহার করবেন

ফেসবুক লাইট কেন ব্যবহার করবেন

বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কথা বললেই যে নামটি সবার আগে আমাদের মাথায় আসে তা হলো ফেসবুক। কিন্তু এই ফেসবুক নিয়েও বিড়ম্বনার কোনো শেষ নেই। যাদের ফোনের RAM এবং Storage কম থাকে তারাই মুলত বেশি সমস্যায় পরে জনপ্রিয় এ মাধ্যমটি ব্যবহার করতে ফোনের মধ্যে ঘাপটি মারা থাকা এ অ্যাপসটি অনায়েসে আপনার ফোনের ২০০ থকে ৩০০ মেগাবাইট স্টোরেজ দখল করে রাখতে পারে। তাই সরাসরি ফেসবুক ব্যবহার না করে আপনি ব্যবহার করতে পারেন ফেসবুকের লাইট ভার্সনটি যা ফেসবুক লাইট নামে সকলের কাছে পরিচিত। তাহলে চলুন দেখে নেওয়া যাক ফেসবুক লাইট ব্যবহারের কিছু সুবিধা –

১) লাইটে স্টোরেজ এর উপর খুব কম চাপ পরে। প্রাথমিক অবস্থায় লাইট ইন্সটল করলে এতে ১০ মেগাবাইট বা এর কম স্টোরেজের দরকার পরে।

২) ফেসবুক লাইটে আপনি টাইমলাইন স্ক্রলিং এর পাশাপাশি একই সাথে নোটিফিকেশন চ্যাক, এবং মেসেজিং করতে পারবেন এর জন্য আপনাকে আলাদা করে মেসেঞ্জার ইন্সটল করার দরকার পরবে না।

আরও পড়ুন:

ফেসবুক হ্যাক হওয়া থেকে বাঁচার উপায়

ফেসবুক প্রোফাইল ও পেজ ভেরিফাই করার নিয়ম

৩) কম বাজেটের ফোনেও অনায়েসে ব্যবহার করতে পারবেন।

৪) আপনি চাইলে এটি ফ্রি ব্যবহার করতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনি ছবি এবং ভিডিও ব্যতীত সকল কাজী করতে পারবেন।

৫) সেটিংস জনিত কোনো জটিলতায় পরতে হবে না। ব্যবহারকারির কথা মাথায় রেখে খুব সহজসাধ্য সেটিংস এতে রাখা হয়েছে।

৬) এর আরেকটি বড় সুবিধা হলো এতে বিজ্ঞাপন দেখার কোনো ঝামেলা নেই।

৭) ডাটা সেভার মুড থাকায় হাই রেজুল্যশনের ভিডিও ও ছবির কোয়ালিটি কমিয়ে দিয়ে আপনি আপনার ডাটাও সেভ করতেও পারেন।

আরও পড়ুন:

যেভাবে বন্ধ করবো ফেসবুকের কমেন্ট সেকশন

ফেসবুক গ্রুপের নোটিফিকেশন বন্ধের উপায়

টেলিগ্রামে মেসেজ শিডিউল করবেন যেভাবে

######

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button