ছারপোকা থেকে বাঁচার উপায় । ছারপোকা তাড়ানোর ঘরোয়া উপায়

ছারপোকা চিরতরে দমনের উপায়

ছারপোকা থেকে বাঁচার উপায়

সব পোকাই কম-বেশি বিরক্তিকর। তবে, বিরক্তির তালিকায় শীর্ষে রয়েছে ছারপোকার নাম। আকারে ক্ষদ্র হলেও যে কোন বাসায় শান্তি নষ্ট করার জন্য এই পোকার যথেষ্ট খ্যাতি বা সুনাম রয়েছে।

আপনি যখন গভীর ঘুমে নিমগ্ন তখন এই পোকা আপনার লেপ বা তোষকের মধ্য থেকে বের হয়ে কামড়াতে শুরু করবে। আপনি এর জ্বালায় ঘুমাতে পারবেননা। ঘুম থেকে উঠে লাইট জ্বালানোর আগেই আবার লুকিয়ে পড়বে। আকারে ক্ষুদ্র হওয়ায় আপনার চোখেও পড়বেনা। এর কারণে আপনার ত্বকের ক্ষতি হতে পারে, জ্বালাপোড়ার সৃষ্টি হতে পারে।

বিশেষ করে যারা মেসে বা বিশ্ববিদ্যালয়ের হলে থাকেন তারা মোটামুটি সবাই জানেন, ছাড়পোকার কামড় কী জিনিস! ছারপোকার কামড় যে কী ভয়ঙ্কর, এই পোকার কামড় যারা না খেয়েছেন তারা হয়তো ভাবতেও পারবেন না। অন্যদিকে ছারপোকার যন্ত্রণায় যাদের জীবন অতিষ্ঠ, তারাই ভালো বলতে পারবেন এই ছোট্ট পোকাটির অত্যাচার সম্পর্কে। তবে এই দুষ্টু পোকাটি দমন করতে বেশ কিছু উপায় আছে ।

রক্ত না খেলে ছারপোকা বাঁচতে পারে না। তাই বাঁচার তাগিদে ওরা রক্ত পান আসে। ওদের পছন্দের জায়গা হলো লেপ-তোষক, বালিশ, সোফা, মশারি ইত্যাদি। ছারপোকা অনেকটা মশার মতো কামড় দেওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যে স্থান ত্যাগ করে।

সাধারণ যেসব বাসায় পর্যাপ্ত সূর্যের আলো বাতাস পড়েনা এসব বাসায় ছাড়পোকার বেশি সংক্রমণ ঘটে। ছারপোকাক নিমিষেই মানুষের রক্ত চুষে খায় বলে একে রক্তচোষাও বলা হয়। এই নির্লজ্জ পোকা একবার কারো বাড়ির অতিথি হলে আর যেতে চায়না। তবে, আজ আপনাদের কিছু টিপস শেয়ার করবো যেগুলো করলে আপনি ছারপোকা দূর করার উপায় পেয়ে যাবেন। আপনি ছারপোকা থেকে বাঁচতে পারবেন।

ছারপোকা তাড়ানোর উপায়

চলুন ছারপোকার হাত থেকে বাঁচতে ঘরোয়া কিছু উপায় জেনে আসি:

কাপড় সেদ্ধ করে ধোয়া

ছারপোকা সাধারণত বেশি তাপমাত্রায় বাঁচতে পারেনা। ১১৩ ডিগ্রি তাপমাত্রায় ছারপোকা মারা যায়। তাই ঘরে ছারপোকার আধিক্য বেশি দেখা দিলে বালিশের কভার, বিছানার চাদর, কাঁথা ও বাসার ছারপোকা আক্রান্ত জায়গাগুলোর কাপড় বেশি তাপে সেদ্ধ করে ধুয়ে ফেলুন। এতে সব ছারপোকা সহজে নির্মূল হবে।

সূর্যের তাপ

ছারপোকা দমনের আরেকটি জনপ্রিয় পদ্ধতি হলো সূর্যের তাপ। এটি বেশ কার্যকরী্। সুপ্রাচীন কাল থেকেই এই পদ্ধতি ব্যবহার হয়ে আসছে। এখনো গ্রামেগঞ্জে এই পদ্ধতির ব্যবহার লক্ষ্য করা যায়। এই পদ্ধতিতে যেসকল জিনিস গরম পানি দিয়ে ধোওয়া যাবে না সেসকল জিনিস সকালে রোধে দিতে হয়। শক্তিশালী রোধের তাপমাত্রায় কারণে ছারপোকাগুলো মারা যাবে একইসাথে সাথে তাদের ডিমও।

আরও পড়ুন: উকুন দূর করার উপায়

ন্যাপথলিনের ব্যবহার

পোকা-মাকড়ের হাত থেকে রক্ষা পেতে বেশ সুপরিচিত নাম ন্যাপথল। আপনি এই ন্যাপথলিনের মাধ্যমে ছারপোকা থেকে মুক্তি পেতে পারেন। সেজন্য যেসব স্থানে ছারপোকা জন্ম নিয়েছে সেসব স্থানে ন্যাপথলিন গুঁড়া করে ছিটিয়ে দিন। এমনটি মাসে দুই তিনবার করতে হবে। তাহলে ঘর ছারপোকা মুক্ত থাকবে।

 

ক্যামিকেল ব্যবহারের মাধ্যমে

ছারপোকা মারার জন্য বাজারে বিভিন্ন ধরনের ক্যামিকেল জাতীয় বিষ রয়েছে। আপনি চাইলে সেগুলো ব্যবহার করে ছারপোকা থেকে রক্ষা পেতে পারেন।

 

ছারপোকা মারার ট্যাবলেট

আপনি চাইলে ট্যাবলেটের মাধ্যমে ছারপোকা মারতে পারেন। ছারপোকা মারার জন্য বাজারে এক ধরনের ট্যাবলেট রয়েছে। যার নাম Aluminium Phosphide. বাজারে যেসব দোকানে কৃষিকাজের জন্য সার, পোকা মাকড়ের বিষ বিক্রি করা হয় সেসব দোকানে আপনি এ ট্যাবলেট পেতে পারেন। প্রতিটি ট্যাবলেটের দাম ১০-১৫ টাকা।

ব্যবহারও খুব সহজ। প্রতি রুমের জন্য ৮-১০ টি ট্যাবলেট ক্রয় করে রুমের মেঝেতে পেপারের উপর ট্যাবলেটগুলো ফেলে একদিন বাইরে থাকুন। এসে দেখবেন একটি ছাড়পোকাও আর জীবিত নেই। তারপর রুম পরিষ্কার করে আরামে জীবন যাপন শুরু করুন।

ভ্যাকুয়াম ক্লিনার ব্যবহার

এই পদ্ধতিটি বাংলাদেশে বেশি জনপ্রিয় নয়। তবে, ছাড়পোকা দমনে এই পদ্ধতি ভালো কাজ করে। সেজন্য আপনাকে একটি ভ্যাকুয়াম ক্লিনার নিয়ে যেসকল স্থানে ছারপোকা রয়েছে সেসকল স্থানে পরিষ্কার করতে হবে। ভ্যাকুয়াম ক্লিনার দিয়ে পরিষ্কার করার ফলে ছারপোকার ডিমসহ ছারপোকা ভ্যাকুয়াম ক্লিনারে চলে যাবে। তারপর ভ্যাকুয়াম ক্লিনারটি বাড়ির বাইরে নিয়ে পরিষ্কার করে ধুয়ে ফেলুন।

 

সার্ফ এক্সেল দিয়ে স্প্রে

ছাড়পোকা আক্রান্ত জায়গাগুলোতে সার্ফ এক্সেল দিয়ে স্প্রে করলে সহজেই ছাড়পোকা মারা যাবে। এটি পুরোপুরি কার্যকর করতে এক লিটার পানিতে ডিটারজেন্ট যেমন সার্ফ এক্সেল ঘন করে মিশিয়ে স্প্রে করতে হবে। এছাড়া ল্যাভেন্ডার অয়েল স্প্রে করার মাধ্যমেও ছাড়পোকা তাড়ানো সম্ভব।

 

কেরোসিনের প্রলেপ

ছাড়পোকা তাড়াতে কেরোসিনের প্রলেপ ভালো কাজ করে।  আসবাবপত্রে কেরোসিনের প্রলেপ দিলে সহজেই এটি থেকে মুক্তি মিলবে।

 

তেলের ব্যবহার

ছারপোকা দূর করার জন্য এক বিশেষ ধরনের তেল ব্যবহার করতে পারেন। এই তেল আপনার বাসার ছাড়পোকা দূর করতে সহায়তা করবে। আপনার বাসায় যেসকল জায়গায় ছারপোকা জন্ম নিয়েছে সেসকল জায়গায় ল্যাভেন্ডার অয়েল স্প্রে করে দিন। এভাবে কয়েকদিন ল্যাভেন্ডার অয়েল স্প্রে করলে ছারপোকা দ্রুত পালাবে।

 

পুদিনাপাতা

পুদিনাপাতার গন্ধ ছারপোকা সহ্য করতে পারে না। তাই,  ছারপোকা থেকে বাঁচার উপায় হিসাবে বিছানার নিচে পুদিনা পাতা রাখতে পারেন। এক্ষেত্রে শুঁকনো পুদিনা পাতাও ভালো কাজ করবে।

 

দেয়াল থেকে দূরে বিছানা স্থাপন

ছারপোকার হাত থেকে বাঁচতে হলে আপনার বিছানা দেয়াল থেকে কিছুটা দূরে রাখুন। ঘুমানোর আগে ও পরে বিছানা ভালো করে পরিষ্কার করুন। তাহলে ছাড়পোকা কম জন্ম নিবে।

####

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button