কম্পিউটার হ্যাং হলে করণীয়

কম্পিউটার হ্যাং হলে যা করনীয়

কম্পিউটার ছাড়া আমাদের জীবন অচল। বর্তমান সময়ে আমরা দেখতে পাই প্রত্যেকের বাড়িতে কম করে হলেও একটি করে কম্পিউটার রয়েছে। কম্পিউটার দিয়ে আমরা যেমন বহুবিধ কার্য সমাধান করি তেমনি বিশেষ কিছু কারনে আমরা এ থেকে কম ভোগান্তিরও স্বীকার হই না। আর এই ভোগান্তির এক অন্যতম নাম হলো কম্পিউটার হ্যাং হয়ে যাওয়া, যা আমাদের কাজের আনেক ক্ষতি করে।

আরও পড়ুন:

স্মার্টফোন বারবার হ্যাং হলে যা করবেন

হেডফোন ও ইয়ারফোনের মধ্যে পার্থক্য

অনেক সময় কাজের এ ক্ষতি থেকে বাঁচতে অফিসে  স্পেশালিস্ট নিয়োগ দেওয়া হয়। তবে আপনি যদি বাড়িতে এ সমস্যার সম্মুখীন হন তাহলে ভীষণ বিপদ আর তখন এ সমস্যার সমাধান আপনার নিজেকেই করতে হবে। সমস্যা সমাধান করার আগে জানতে হবে কেন আপনার কম্পিউটার হ্যাং করছে। বিভিন্ন কারনে কম্পিউটার হ্যাং হতে তার মধ্যে প্রধান কিছু কারন হলো –

১) কুম্পিউটার স্টোরেজ কমে গেলে; কম্পিউটার হ্যাং হতে পারে।

২) দীর্ঘ সময় ব্যবহারের ফলে RAM এর উপর চাপ পড়ে। ফলে কম্পিউটার হ্যাং হতে পারে।

৩) কম্পিউটার ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হলেও কম্পিউটার হ্যাং হতে পারে।

৪) খুব বেশি ট্যাম্প ফাইল কম্পিউটার হ্যাং করার আন্যতম একটি কারন ।

৫) কোনো কারনে কম্পিউটার আতিরিক্ত গরম হলে; কম্পিউটার হ্যাং হতে পারে।

 

কম্পিউটার হ্যাং হলে যা করবেন

স্টোরেজ বৃদ্ধি

যতই দিন যায় কম্পিউটারে স্টোরেজের ওপর ততই চাপ পর‍তে থাকে কেননা ব্যবহারকারীকে প্রতিদিন কিছু না কিছু ডাটা সংরক্ষন করতে হয়। এজন্য কম্পিউটারে স্টোরেজের মাত্রা বৃদ্ধি করতে হবে। প্রয়োজনে ক্লাউড স্টোরেজ ব্যবহার করতে হবে। বর্তমানে কম্পিউটারকে নির্বিঘ্নে ব্যবহারে জন্য SSD ব্যবহার করা হয় যা খুবই কার্যকরী। এছাড়া RAM বৃদ্ধি করলেও এ সমস্যা থেকে অনেকাংশে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

আরও পড়ুন:

ওয়াইফাইয়ের স্পিড বাড়াবেন যেভাবে

ফেসবুক আইডি হ্যাক হলে উদ্ধার করবেন যেভাবে

এন্টি ভাইরাস ব্যবহার

না বুঝে ফাইল ডাউনলোড করলে ভাইরাস আক্রমন করতে পারে যা কম্পিউটারকে মারত্নক ঝুকিতে ফেলতে পারে। আর ভাইরাসের কারনেও কম্পিউটার হ্যাং হয়ে থাকে এজন্য এন্টিভাইরাস ব্যবহার করতে হবে। এন্টি ভাইরাস ব্যবহারের মাধ্যমে ভাইরাস ফাইল মুছে ফেলা সম্ভব।

 

টেম্প ফাইল

টেম্প ফাইল কম্পিউটারে বেশি পরিমান হয়ে গেলে কম্পিউটার হ্যাং করতে পারে এজন্য কিছুদিন পরপর টেম্প ফাইল দেখে নিয়ে মুছে ( Delete) করে দিতে হবে।

আরও পড়ুন:

মোবাইল অফিশিয়াল না আন অফিশিয়াল বুঝবেন যেভাবে

ই-সিম কী? ই-সিমের সুবিধা ও অসুবিধা এবং ব্যবহারের নিয়ম

অপারেটিং সিস্টেম আপডেট

প্রতিটি অপারেটিং সিস্টেম আসার পর এতে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয় এক্ষেত্রে আপডেটের মাধ্যমে সেগুলো সমাধান করা হয়। সেজন্য ওএস তথা অপারেটিং সিস্টেমকে নিয়মিত আপডেট দিয়ে রাখতে হবে।

#######

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button